গর্ভাবস্থায় রোজা রাখা যাবে কিনা? - Ask Answers
Ask Answers এ আপনাকে স্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং সাইটের অন্যান্য সদস্যদের কাছ থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

3 বার দেখা হয়েছে
"ফতোয়া" বিভাগে করেছেন

1 উত্তর

0 জনের পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন জ্ঞানী সদস্য

রোজা মুসলমানদের ৫টি ফরজ স্তম্ভের একটি। বয়ো:প্রাপ্ত সবার জন্য প্রযোজ্য। কিন্তু ফরয কাজে আমি নিষেধ করার কেউ নই যতক্ষন আপনি সুস্থ থাকেন। রোজা রাখবেন কি রাখবেন না সেটা আপনার এবং গর্ভস্থ বাচ্চার অবস্থার উপর নির্ভর করবে। আসুন দেখি বিজ্ঞান এবং ধর্ম কি বলে?

বৈজ্ঞানিক দর্শন: গর্ভবতী রোজাদার এবং রোজাদার নন এমন মহিলাদের নিয়ে গবেষনায় দেখা গেছে যে রোজায় গর্ভস্থ শিশুর গ্রোথ, ডেভেলপমেন্ট এবং জন্মকালীন ওজনের কোন উল্লেখযোগ্য ব্যবধান নেই। সব মহিলাদের বাচ্চাদের ওজন, দৈর্ঘ্য এবং মাথার বেড় সমান। বাচ্চা মায়ের পুষ্টি নিয়ে বেড়ে ওঠে। তাই নিজের শরীর স্বাস্থ্য ভাল থাকলে বাচ্চার ডেভেলপমেন্টে কোন অসুবিধে হয় না। তবে ফার্স্ট ট্রাইমেস্টারে অর্থাৎ প্রেগন্যান্সির প্রথম তিনমাসে রোজা রাখলে কম জন্ম ওজন হবার সম্ভাবনা ১.৫ গুন বেশী হলেও সেটা কোন উল্লেখযোগ্য ব্যবধানও নয় এবং যা কোন উল্লেখযোগ্য প্রভাবও ফেলে না। ধারনা করা হয় ভবিষ্যতে বুদ্বিমত্তার ঘাটতি থাকতে পারে তবে তার কোন শক্ত বৈজ্ঞানিক প্রমাণ নেই। দীর্ঘ দিবসের রোজার সময়ে যদি পানির অভাবে ডিহাইড্রেশন হয় এবং শারিরীক অবস্থার অবনতি হয় তাহলে চিকিৎসক মনে করলে রোজা রাখতে বারন করতে পারেন। এ ছাড়াও শারিরীক যে কোন অসুস্থতার জন্য রোজা রাখা যাবে না। তবে সম্পূর্ন সুস্থ এবং সক্ষম মহিলাদের জন্য রোজা বারন নয়। 

ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা: পূর্ন রোজা করেও নিজের বা বাচ্চার কোন অসুবিধে হয়নি।

ধর্মীয় দর্শন: যদি কোন মহিলা গর্ভস্থ বাচ্চার জন্য ভীত থাকেন, নিজের শরীরের জন্য ভীত থাকেন, রোজা রাখতে খুব বেশী কষ্ট অনুভব করেন তাহলে রোজা রাখা যাবে না।

কিন্তু কোন কারন ছাড়া সক্ষম মহিলাদের জন্য প্রযোজ্য নয়। কথা হচ্ছে রোজার কোন ক্ষমা নেই। তাই মেকআপ করে দিতে হবে। জেনুইন গ্রাউন্ডে রোজা বাদ দিলে প্রেগন্যান্সি শেষে পরবর্তী রমজান আসার আগে একটির বদলে একটি রোজা রাখতে হবে। অথবা একটি রোজার জন্য দু'জন গরীব লোককে একবেলা খাওয়াতে হবে অথবা একজনকে দু'বেলা খাওয়াতে হবে অথবা সমমূল্যের টাকা দিতে হবে খাবারের জন্য। কোন কোন স্কলারের মতে দু'টোই করতে হবে। কিন্তু রোজা রেখে যদি কারও কোন অসুবিধে না হয় এবং ইচ্ছাকৃতভাবে রোজা বাদ দেয় তাহলে কাফফারা দিতে হবে। সেটি হলো: একটি রোজার বদলে 

১) ৬০ টি ধারাবাহিক রোজা রাখতে হবে

২) না পারলে ৬০ জন গরীব লোককে সারাদিনের খাবার দিতে হবে অথবা ১ জনকে ৬০ দিনের খাবার দিতে হবে। 

৩) অথবা ৬০ জনকে ১.৬ কেজি গম বা সমমূল্য মানের সমান টাকা দিতে হবে যা দ্বারা খাবার কেনা নিশ্চিত করতে হবে। অন্য কোন কাজে ব্যবহার করা যাবে না। আর একটি হাদিস আছে যে একজন দাস বা বন্দীকে মুক্ত করে দিতে হবে। যেটার কথা প্রথমেই বলা আছে তবে সবার জন্য প্রযোজ্য কিনা ভেবে দেখতে হবে। 


মো. আব্দুল কুদ্দুস, আস্ক অ্যানসারস এর প্রতিষ্ঠাতা এবং পরিচালক৷ তিনি পেশায় একজন স্কুল শিক্ষক (আইসিটি) এবং ডিপ্লোমা প্যারামেডিকেল চিকিৎসক৷ তিনি মানুষের উপকার করতে ভালোবাসেন৷ আর তাই মানুষের সমস্যা সমাধানে পরামর্শ দিয়ে উপকারের স্বার্থে প্রতিষ্ঠা করেন আস্ক অ্যানসারস৷ ব্যক্তিগতভাবে তিনি একজন আদর্শবান সৎ মানুষ৷

এ রকম আরও কিছু প্রশ্ন

1 টি উত্তর
10 অগাস্ট 2019 "ফতোয়া" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন ফারাবি জ্ঞানী সদস্য
1 টি উত্তর
04 সেপ্টেম্বর 2019 "ফতোয়া" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
1 টি উত্তর
04 সেপ্টেম্বর 2019 "ফতোয়া" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
1 টি উত্তর
11 অগাস্ট 2019 "ফতোয়া" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
1 টি উত্তর
26 মে 2019 "ফতোয়া" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
1 টি উত্তর
27 অক্টোবর 2019 "ফতোয়া" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Aman অভিজ্ঞ সদস্য
1 টি উত্তর
21 নভেম্বর 2019 "মোবাইল" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Aman অভিজ্ঞ সদস্য

6,003 টি প্রশ্ন

5,624 টি উত্তর

100 টি মন্তব্য

239 জন সদস্য

আস্ক অ্যানসারস বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি অনলাইন কমিউনিটি। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করতে পারবেন ৷ আর অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে অবদান রাখতে পারবেন ৷
  1. রাকিবুল

    5057 পয়েন্ট

    921 টি উত্তর

    452 টি গ্রশ্ন

  2. রাফাত

    4398 পয়েন্ট

    682 টি উত্তর

    938 টি গ্রশ্ন

  3. Md Noor Alom

    1950 পয়েন্ট

    374 টি উত্তর

    66 টি গ্রশ্ন

  4. Kuddus

    449 পয়েন্ট

    75 টি উত্তর

    69 টি গ্রশ্ন

4 জন অনলাইনে আছেন
0 জন সদস্য, 4 জন অতিথি
আজকে ভিজিট : 1966
গতকাল ভিজিট : 4766
সর্বমোট ভিজিট : 1226903
এখানে প্রকাশিত প্রশ্ন ও উত্তরের দায়ভার কেবল সংশ্লিষ্ট প্রশ্নকর্তা ও উত্তর দানকারীর৷ কোনপ্রকার আইনি সমস্যা Ask Answers বহন করবে না৷

করোনাঃ
বাংলাদেশে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত ২,৫৪৫ জন সহ (গতকাল ছিল ১,৭৬৪ জন) মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪৭,১৫৩ জন এবং নতুন করে মৃত্যু ৪০ জন সহ সর্বমোট মৃত্যু ৬৫০ জন এবং সুস্থ হয়ে বাসা ফিরেছেন ৪০৬ জন সহ সর্বমোট ৯,৭৮১ জন৷ * * * তাই করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে নিজের ঘরেই অবস্থান করি ৷ নিজে বাঁচি, নিজের পরিবারকে বাঁচাই এবং অন্যকে বাঁচার সুযোগ দেই৷ * * *
...