রমজান মাসে সেহেরির সময় আযান দেওয়া কতটুকু শরীয়ত সম্মত ? - Ask Answers
একটি ঘোষনা
করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে নিজের ঘরেই অবস্থান করুন৷ নিজে বাঁচুন, অন্যকে বাঁচার সুযোগ দিন৷ জনস্বার্থে প্রচারণায় - Ask Answers
Ask Answers এ আপনাকে স্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং সাইটের অন্যান্য সদস্যদের কাছ থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

11 বার দেখা হয়েছে
"ফতোয়া" বিভাগে করেছেন সিনিয়র অভিজ্ঞ সদস্য

1 উত্তর

0 জনের পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন অভিজ্ঞ সদস্য
সাহারীর আযান দেওয়া সুন্নাত। রাসূলুল্লাহ (ছাঃ)-এর যামানায় তাহাজ্জুদ ও সাহারীর আযান বেলাল (রাঃ) দিতেন এবং ফজরের আযান অন্ধ ছাহাবী আব্দুল্লাহ ইবনে উম্মে মাকতূম (রাঃ) দিতেন। তাই রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) বলেনবেলাল রাত্রি থাকতে আযান দিলে তোমরা (সাহারীর জন্য) খানাপিনা করযতক্ষণ না ইবনে উম্মে মাকতূম আযান দেয়। কেননা সে ফজর না হওয়া পর্যন্ত আযান দেয় না [মিশকাত হা/৬৮০] তিনি আরও বলেনবেলালের আযান যেন তোমাদেরকে সাহারী খাওয়া থেকে বিরত না করে। কেননা সে রাত্রি থাকতে আযান দেয় এজন্য যেযেন তোমাদের তাহাজ্জুদ গোযার মুছল্লীগণ (সাহারীর জন্য) ফিরে আসে ও তোমাদের ঘুমন্ত ব্যক্তিগণ (তাহাজ্জুদ বা সাহারীর জন্য) জেগে ওঠে [মুসলিমমিশকাত হা/৬৮১]এটা কেবল রামাযান মাসের জন্য ছিল না। বরং অন্য সময়ের জন্যও ছিল। কেননা রাসূলুল্লাহ (ছাঃ)-এর যামানায় অধিক সংখ্যক ছাহাবী নফল ছিয়াম রাখতেন। [মিরআত ২/৩৮২হা/৬৮৫-এর আলোচনা দ্রষ্টব্য।] 

আজও রামাযান মাসে সকল মসজিদে এবং অন্য মাসে যদি কোন মসজিদের অধিকসংখ্যক প্রতিবেশী নফল ছিয়ামে যেমন আশূরার দুটি ছিয়ামআরাফাহর একটি ছিয়ামশাওয়ালের ছয়টি ছিয়াম ও তাহাজ্জুদে অভ্যস্ত হনতাহলে ঐ মসজিদে নিয়মিতভাবে উক্ত আযান দেওয়া যেতে পারে। যেমন মক্কা ও মদীনায় দুই হারামে সারা বছর দেওয়া হয়ে থাকে। 

         সুরূজী প্রমুখ কিছু সংখ্যক হানাফী বিদ্বান রাসূলুল্লাহ (ছাঃ)-এর যামানার উক্ত আযানকে সাহারীর জন্য লোকজনকে আহবান ও সরবে যিকর বলে দাবী করেছেন। ছহীহ বুখারীর সর্বশেষ ভাষ্যকার হাফেয ইবনু হাজার আসক্বালানী বলেনএই দাবী মারদূদ বা প্রত্যাখাত। কেননা লোকেরা ঘুম জাগানোর নামে আজকাল যা করেতা সম্পূর্ণরূপে বিদআত যা ধর্মের নামে নতুন সৃষ্টি। উক্ত আযান-এর অর্থ সকলেই আযান বুঝেছেন। যদি ওটা আযান না হয়ে অন্য কিছু হতাহলে লোকদের ধোঁকায় পড়ার প্রশ্নই উঠতো না। আর রাসূল (ছাঃ)-কেও সাবধান করার দরকার পড়তো না। [ফাৎহুল বারী শরহ ছহীহ বুখারী ফজরের পূর্বে আযান অনুচ্ছেদ ২/১২৩-২৪]

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 টি উত্তর
05 মার্চ "ফতোয়া" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন ফারাবি সিনিয়র অভিজ্ঞ সদস্য
0 টি উত্তর
31 ডিসেম্বর 2019 "নারী স্বাস্থ্য" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Minka অভিজ্ঞ সদস্য
0 টি উত্তর
05 মার্চ "ফতোয়া" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন ফারাবি সিনিয়র অভিজ্ঞ সদস্য
1 টি উত্তর
27 অক্টোবর 2019 "ফতোয়া" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Aman অভিজ্ঞ সদস্য
1 টি উত্তর
16 সেপ্টেম্বর 2019 "ফতোয়া" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন ওয়াহিদ অভিজ্ঞ সদস্য
1 টি উত্তর
26 মার্চ "ব্যকরণ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Minka অভিজ্ঞ সদস্য
1 টি উত্তর
1 টি উত্তর
05 মার্চ "কুরআন ও হাদিস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন ফারাবি সিনিয়র অভিজ্ঞ সদস্য
1 টি উত্তর
05 মার্চ "দৈনন্দিন দুয়া" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন ফারাবি সিনিয়র অভিজ্ঞ সদস্য

3,230 টি প্রশ্ন

2,886 টি উত্তর

69 টি মন্তব্য

184 জন সদস্য

আস্ক অ্যানসারস বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি অনলাইন কমিউনিটি। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করতে পারবেন ৷ আর অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে অবদান রাখতে পারবেন ৷
  1. Kuddus

    121 পয়েন্ট

  2. রাইসা

    87 পয়েন্ট

  3. Asif

    86 পয়েন্ট

  4. Jui

    51 পয়েন্ট

3 জন অনলাইনে আছেন
0 জন সদস্য, 3 জন অতিথি
আজকে ভিজিট : 3671
গতকাল ভিজিট : 3803
সর্বমোট ভিজিট : 909965
এই সাইটে প্রশ্ন ও উত্তর করার জন্য দায়ভার সম্পূর্ন সংশ্লিষ্ট প্রশ্নকর্তা ও উত্তর দানকারীর ৷
...